টেস্টেও বাংলাদেশকে হুমকি দিয়ে রাখল নিউজিল্যান্ড

  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১২:৩৬ এএম, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

উপমহাদেশের একটা দলের বিপক্ষে কোন ধরনের স্পিনার নিলে ভালো হয়—লেগ স্পিনার নাকি বাঁহাতি স্পিনার। আরেকটু নির্দিষ্ট করে বললে, লেগ স্পিনার টড অ্যাস্টল, নাকি বাঁহাতি স্পিনার এজাজ প্যাটেল—কাকে নেওয়া যায়? নিউজিল্যান্ডের নির্বাচকেরা অবশেষে আস্থা রেখেছেন ‘লেগি’ অ্যাস্টলের ওপর। বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে প্যাটেলের জায়গায় দলে নেওয়া হয়েছে তাঁকে।

গত ডিসেম্বরে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১-০-তে জেতা টেস্ট সিরিজের দলে পরিবর্তন এই একটাই। এক পরিবর্তনে যে দলটা দিয়েছে নিউজিল্যান্ড, বোঝা যাচ্ছে টেস্টেও কঠিন পরীক্ষা অপেক্ষা করছে বাংলাদেশের।

২০১২ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক অ্যাস্টলের। তবে কখনো চোট আর কখনো বাজে ফর্মের কারণে দল থেকে বাদ পড়ায় ৭ বছরে মাত্র তিনটি টেস্ট খেলতে পেরেছেন। সর্বশেষ নিউজিল্যান্ডের হয়ে অ্যাস্টল টেস্ট খেলেছেন গত বছর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে। অকল্যান্ডে সিরিজের প্রথম টেস্টে চোট পাওয়ায় সিরিজের বাকি ম্যাচগুলোয় আর খেলা হয়নি। দলে ফেরার আগেই আবার চোট পেয়ে ছিটকে পড়েন সংযুক্ত আরব আমিরাতে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের দল থেকেও।

প্যাটেলের অভিষেক আরব আমিরাতে পাকিস্তানের বিপক্ষে আবুধাবি টেস্টে। অভিষেক ম্যাচে ৫৯ রানে ৫ উইকেট নিয়ে দলের ৪ রানের জয়ে বড় ভূমিকা রেখেছিলেন প্যাটেল। তবে পরের ৪ টেস্টে নিতে পেরেছেন মাত্র ৬ উইকেট। এজাজের জায়গায় অ্যাস্টলকে দলে নেওয়া প্রসঙ্গে কিউই নির্বাচক গেভিন লারসেন বলেছেন, ‘স্পিন বোলিংয়ের এই জায়গাটাতেই শুধু আমরা পরিবর্তন করেছি। এটা আমরা করেছি কন্ডিশন আর চোটের বিষয়টি বিবেচনা করে। বিশ্বমানের কয়েকজন স্পিনার থাকায় আমরা ভাগ্যবান। সংযুক্ত আরব আমিরাত সফরের তারকা এজাজকে বাদ দেওয়াটা আসলে কঠিন ছিল।’

ঘরের মাঠে অ্যাস্টল তাঁর টেস্ট দলে ফেরাটা স্মরণীয় করে রাখতে পারবেন বলেই বিশ্বাস লারসেনের, ‘টডকে আবার ফিট দেখতে পাওয়াটা দারুণ ব্যাপার। দেখি নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনে তার রিস্ট-স্পিন কতটা কাজে লাগে। সে ভালো ব্যাটও করতে পারে।’ হাঁটুর চোট থেকে সেরে উঠলেও স্পিনিং অলরাউন্ডার মিচেল স্যান্টনারকে দলে রাখা হয়নি। ব্যাটিংয়ে বাড়তি বিকল্প হিসেবে নির্বাচকেরা দলে রেখেছেন অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা উইল ইয়ংকে।

তিন টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচটি হ্যামিল্টনে শুরু ২৮ ফেব্রুয়ারি। পরের দুটি ম্যাচ ওয়েলিংটন ও হ্যামিল্টনে।

নিউজিল্যান্ড দল:
কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), ট্রেন্ট বোল্ট, টিম সাউদি, ম্যাট হেনরি, কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম, টম ল্যাথাম, হেনরি নিকোলস, জিত রাভাল, রস টেলর, নিল ওয়াগনার, বিজে ওয়াটলিং, টড অ্যাস্টল, উইল ইয়ং।

প্রিয় পাঠক, আপনিও হতে পারেন আওয়ার বাংলা অনলাইনের একজন অনলাইন প্রতিনিধি। খেলাধুলা বিষয়ে যেকোন তথ্য, প্রতিবেদন, প্রশিক্ষণ, টিপস, আপনার প্রতিষ্ঠানের খেলা সংক্রান্ত অলোচনা নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুনঃ [email protected] এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :