সঠিক নিয়মে হাঁটছেন তো?

  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১২:০৩ পিএম, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

ডায়াবেটিস থেকে শুরু করে বাড়তি ওজন, থাইরয়েড সমস্যা, হার্টজনিত রোগের সম্ভাবনা ইত্যাদি থেকে দূরে থাকার জন্য হাঁটার বিকল্প কিছু নেই। তবে অনেকে হেঁটেও উপকার পান না। মূলত হাঁটার জন্যও রয়েছে কিছু নির্দিষ্ট নিয়ম। সেগুলো না মেনে হাঁটলে কোনো লাভ হয় না। চলুন তবে এমন এমন কিছু নিয়মের কথাই জেনে নেওয়া যাক-

ডায়েটেশিয়ানদের মতে, যখন খুশি হাঁটা যায়। সকালেই হাঁটতে হবে, কিংবা বিকেলে হাঁটা লাগবে এমন কোনো নির্দিষ্ট নিয়ম নেই। তবে আপনার দেহের জন্য কোন সময় হাঁটা উপকারী তা জেনে নিন চিকিৎসকের কাছ থেকে। তারপর নির্দিষ্ট সময়ে হাঁটুন।

ভরা পেটে যেমন ওয়ার্ক আউট করা সম্ভব হয় না, তেমনি খালি পেটেও তা হয় না। অনেকে ভাবেন, খালি পেটে হাঁটলে বেশি উপকার পাবেন। এই ধারণা ঠিক নয়। হালকা কিছু খেয়ে কিংবা খাওয়ার আধ ঘণ্টা পর হাঁটুন।

ভেঙে ভেঙে ৫/১০ মিনিট হাঁটবেন না। সময় করে একটানা আধঘণ্টা হাঁটুন। এতে দেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।

ছোট মাঠে কিংবা ছাদে চক্রাকারে হাঁটেন? এভাবে হেঁটে কোনো উপকারই পাবেন না। তারচেয়ে বরং লম্বা রাস্তা ধরে হাঁটুন। সীমিত জায়গা হলে শরীরে হাঁটার ছন্দ তৈরি হয় না। তাই, একটানা আধা ঘণ্টা হাঁটতে পারবেন এমন রাস্তা ধরে হাঁটুন। বিশেষ করে পার্কের রাস্তাগুলো হাঁটার জন্য বেশি উপযোগী।

হাঁটার সময় মোবাইল ব্যবহার করা কিংবা গল্প করার অভ্যাস থাকলে তা আজই বাদ দিন। এতে হাঁটার জোর কমে যায়। চেষ্টা করুন বড় বড় কদমে হাঁটতে, যেন শরীর থেকে ঘাম বের হয়।

এখন থেকে তবে নিয়ম মেনে প্রতিদিন হাঁটুন আর নিশ্চিত করুন সুস্বাস্থ্য।

আপনার মতামত লিখুন :