বাড়ি তৈরির জন্য ভূমিকম্পের প্রস্তুতি

  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১০:২৩ পিএম, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮

নিজের একটি নিরাপদ মাথা গোজার ঠাঁই কে না চায়। তবে বাড়ি তৈরির ক্ষেত্রে বেশিরভাগ মানুষ ইঞ্জিনিয়ারদের উপর নির্ভর করে। কিন্তু আপনি জানেন কি নিরাপদ বাড়ি তৈরির ক্ষেত্রে বাড়ির মালিকদের বাড়ির তৈরি জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানান প্রয়োজন।

বাড়ির তৈরি ক্ষেত্রে একটি অতিবয় গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে ভুমিকম্প। ভূমিকম্প সম্পর্কে আমরা কমবেশি সবাই জানি। কয়েক বছর আগেও আমরা দেখেছি প্রাকৃতিক সুন্দর্য়ের নীলাভূমি নেপাল। ভূমিকম্পের ফলে ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছিল দেশটি। তবে বাংলাদেশ কিন্তু ভূমিকম্পের বাইরে নয়। চলতি বছরেও বেশ কয়েকবার বাংলাদেশে হানা দিয়েছে ভূমিকম্প। তাই নিরাপদে থাকতে ভুমিকম্পসহনীয় বাড়ি বানানো জরুরি।

আসুন জেনে নেই নতুন বাড়ি তৈরি ক্ষেত্রে ভূমিকম্পের প্রস্তুতি নেবেন যেভাবে।

মাটি পরীক্ষা

প্রথমে মাটি পরীক্ষা করে নিতে হবে।মাটি দেবে যাওয়ার প্রবণতা আছে কি না তা দেখে বাড়ি নির্মাণ করতে হবে।

নকশা

বাড়ি তৈরির ক্ষেত্রে নকশা খুবই প্রয়োজন। দক্ষ প্রকোশলীকে দিয়ে নকশা তৈরি ও তদারকি করানো প্রয়োজন।

রড, বালু ও সিমেন্ট

ফাউন্ডেশন বা ভিত্তিপ্রস্তর কোর্ড অনুযায়ী রড ব্যবহার করতে হবে।রডের ব্যবহার ভূমিকম্পের সহনশীল হতে পারে। ভালো মানের রড, সিমেন্ট ও বালু ব্যবহার করতে হবে।

গ্রেটবিম ও রডের বাঁধন

ভিত্তিপ্রস্তরে গ্রেটবিম কলাম সংযোগস্থলে প্রয়োজনীয় কোর্ড অনুযায়ী রড দিতে হবে। কলামের রডের বাঁধনগুলোর শেষ মাথা ১৩৫ ডিগ্রি হতে হবে।বাঁধনগুলোর মধ্যে ফাঁকা হবে কম।বিম কলামের সংযোগস্থানে জোড়া লাগানো যাবে না।

লিফটের দেওয়াল

বহুতল ভবনে কংক্রিটের তৈরি লিফটের দেওয়াল প্রয়োজনমতো থাকা উচিত।কার পার্কিং বিম এ কলাম বারাবর বাহিরের দেওয়াল প্রয়োজনমতো থাকা উচিত। এছাড়া ভূমিকম্পের প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থার জন্য অতিরিক্ত খরচ হবে প্রতি বর্গফুট ১০ থেকে ১৫ টাকা।

প্রিয় পাঠক, আপনিও হতে পারেন আওয়ার বাংলা অনলাইনের একজন অনলাইন প্রতিনিধি। লাইফস্টাইল বিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুনঃ [email protected] এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :