ভিকারুননিসার অধ্যক্ষসহ ৩ শিক্ষক বরখাস্ত, ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ

  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৩:০০ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর ২০১৮

অভিভাবকদের ডেকে অপমানের জের ধরে রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রভাতী শাখার নবম শ্রেণির ছাত্রী অরিত্রী অধিকারীর (১৫) আত্মহননের ঘটনায় প্রতিষ্ঠানটির ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষসহ তিন শিক্ষককে বরখাস্ত এবং তাদের এমপিও বাতিলের নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এ ঘটনায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের গঠিত তদন্ত কমিটির তদন্তে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার পর শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বুধবার (৫ ডিসেম্বর) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এ সিদ্ধান্তের কথা জানান।

অভিযুক্ত তিন শিক্ষক হলেন- ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৗস, প্রভাতী শাখার প্রধান জিন্নাত আরা এবং শ্রেণি শিক্ষক হাসনা হেনা।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের গঠিত তদন্তে শিক্ষার্থী আত্মহননের প্ররোচণার জন্য এই তিন শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়ায় বিভাগীয় মামলাসহ অন্য আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এই তিনজন শিক্ষকের এমপিও বাতিল করারও সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

পরবর্তী ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের সব ক্লাস–পরীক্ষা বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। স্কুলের গভর্নিং বডির শিক্ষক প্রতিনিধিদের একজন মুশতারী সুলতানা অধ্যক্ষের কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ কথা জানান।

মুশতারী বলেন, ‘অরিত্রীর সহপাঠীরা যারা আন্দোলন করছে, তাদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে ক্লাস ও পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। আমরা অরিত্রীর ঘটনায় গভীরভাবে শোকাহত। ছাত্রীরাও গভীরভাবে শোকাহত। তাদের বান্ধবী মারা গেছে, পড়াশোনা করতে পারছে না। এ কারণে পরীক্ষা বাতিল করেছি।’

অধ্যক্ষ কোথায় জানতে চাইলে বলেন, ‘তিনি অসুস্থ। আমরা গভর্নিং বডির সদস্যরা মিলে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

শিক্ষকদের বিরুদ্ধে কোচিং ও বাজে ব্যবহারের অভিযোগ বিষয়ে জানতে চাইলে মুশতারী সাংবাদিকদের বলেন, ‘এখানে ৭০০ জনের মতো শিক্ষক আছে। ২ থেকে ৫ শতাংশ শিক্ষক কোচিং করায়। সবাই এক রকম নয়। কারও বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট কোনো অভিযোগ থাকলে আমরা শিক্ষার্থী অভিভাবকদের লিখিতভাবে দিতে বলেছি।’

শিক্ষার্থীদের গভর্নিং বডির পদত্যাগের দাবি বিষয়ে মুশতারী বলেন, ‘এটি তো শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিষয়। তারা পরিবর্তন করে দিলে আমাদের কিছু করার নেই।’

মুশতারী সুলতানা প্রেস ব্রিফিং করার আগে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তিন ফটকের বাইরে অবস্থান নেওয়া শিক্ষার্থীদের গিয়ে ক্লাস–পরীক্ষা বন্ধ করার বিষয়টি জানিয়ে আসেন।

প্রিয় পাঠক, আপনিও হতে পারেন আওয়ার বাংলা অনলাইনের একজন সক্রিয় অনলাইন প্রতিনিধি। আপনার আশেপাশে ঘটে যাওয়া ঘটনা, অপরাধ, সংবাদ নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুনঃ [email protected] এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :