‘ভালোবাসা’ দেশে দেশে

  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৫:২১ এএম, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

ভালোবাসার মানুষের সাথে দিনের পর দিন একসাথে কাটালেও অনেক সময় বলা হয়ে ওঠে না ‘ভালোবাসি’। অথচ এই চার অক্ষরের ছোট্ট এই শব্দটি অনেক সময় হয়ে ওঠে রাগ-দুঃখ মিলিয়ে ফেলার অন্যতম একটি মাধ্যম। বাংলা ভাষাভাষীদের জন্য ‘ভালোবাসি’ শব্দে মনের অব্যক্ত কথা ফুটিয়ে তোলা গেলেও বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ‘আই লাভ ইউ’ এই তিন শব্দই বেশি প্রচলিত। তবু কিছু দেশ তাদের ভৌগোলিক অবস্থানের কারণে এই ভালোবাসা প্রকাশের মাধ্যমে হয়ে উঠেছে আলাদা। দেশে দেশে এর প্রকাশ আবার কিছুটা আলাদা।

চলুন জেনে নিই কোন দেশে ‘ভালোবাসি’ শব্দটিকে কীভাবে প্রকাশ করে:

চীন : 

চীনে ভালোবাসা প্রকাশের ক্ষেত্রে ‘ও আই নি’ শব্দটি ব্যবহার করা হয়। এই শব্দের মাধ্যমেই নারী-পুরুষের একে অপরের প্রতি চূড়ান্ত ভালোবাসা প্রকাশ পায়। কোনও পুরুষ নারীকে এ কথা বললে বুঝে নিতে হয় তিনি একটি বিশেষ সম্পর্কে আবদ্ধ হতে চান।

ফ্রান্স : 

ইউরোপের এই দেশটিতে ভালোবাসা প্রকাশের ছবিটা অন্য দেশের তুলনায় কিছুটা আলাদা। ভালোবাসার আগে ডেটিং করা এ দেশে খুব স্বাভাবিক একটা বিষয়।

ডেটিং চলাকালীন প্রায় মাস দুইয়ের মধ্যে নারী-পুরুষ একে অপরকে ‘ইয়ে তে আমিই’ বাক্যটি বলেন। এর অর্থ ‘আমি তোমাকে ভালোবাসি’।

জাপান : 

জাপানে ‘আমি তোমাকে ভালোবাসি’ কথাটা সরাসরি প্রকাশ করা যায় না। সেখানে ভালোলাগাকে ‘সুকি’ আর স্নেহ করাকে ‘আই’ বলা হয়। এ দুই শব্দ মিলিয়েই জাপানীরা তাদের ভালোবাসা প্রকাশ করে থাকে সাধারণত।

তাই কাছের মানুষকে ভালোবাসার কথা বুঝাতে তারা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ব্যাখ্যার আশ্রয় নিয়ে থাকেন।

ইরাক : 

‘ভালোলাগা’ এবং ‘ভালোবাসা’ দুটি শব্দ লিখতেই আরবী ভাষায় ‘আহবাক’ শব্দটি ব্যবহার করা হয়। এ অর্থে নারী-পুরুষ খুব সহজেই একে অন্যকে ‘ভালোবাসি’ কথা বলে ফেলতে পারেন।

ইরান : 

ইরানে বিংশ শতাব্দীতে সাধারণত ‘আই লাভ ইউ’ বলে সম্পর্ক শুরু করতেন পুরুষরাই। সে সময় কোনো নারীকে ‘ইক হাল্দ ফান দেই’ বলার অর্থই ছিল তিনি সেই নারীকে বিয়ে করতে চান।

তবে এ ধারা একদম বদলে যায় ১৯৭৯ সালের ইসলামিক বিপ্লবের পর। এখন সে দেশে ‘ইক হাল্দ ফান দেই’ বাক্যটি যে কেউ বলতে পারেন। এর অর্থ ‘তোমার সাথে আরও এক ধাপ এগিয়ে যেতে আমি রাজি’।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ভালোবাসা প্রকাশের ধরন বিভিন্ন হলেও ভালোবাসার রঙ সব জায়গায় এক। সর্বত্র জয় হোক ভালোবাসার।

প্রিয় পাঠক, আপনিও হতে পারেন আওয়ার বাংলা অনলাইনের একজন অনলাইন প্রতিনিধি। লাইফস্টাইল বিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুনঃ [email protected] এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :