নির্বাচন পরবর্তী বার্তা নিয়ে আসছেন শেখ হাসিনা

  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১০:১৫ পিএম, ১২ জানুয়ারি ২০১৯

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়ী হয়ে সরকার গঠনের পর প্রথমবারের মত আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ ও কার্যনির্বাহী সংসদের নেতাদের নিয়ে বৈঠকে বসছেন দলীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার (১২ জানুয়ারি) বিকেলে ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। গত নির্বাচন মূল্যায়ন, আগামীর কর্মপন্থা ঠিক করতে বিশেষ বার্তা দিতে পারেন দলীয়প্রধান।

আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ভোটের পর প্রথমবারের মতো এ ধরনের বৈঠক হচ্ছে। তাই বৈঠকটি গুরুত্বপূর্ণ। আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন, ২০২০ সালে ‘মুজিববর্ষ’ পালনসহ সাংগঠনিকভাবে দলকে গতিশীল ও চাঙ্গা করা নিয়ে আলোচনা হতে পারে। সেই সঙ্গে আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত এমপিদেরকে তৃণমূলের সঙ্গে সম্পর্ক সুদৃঢ় করে উন্নয়নকর্মকাণ্ডকে এগিয়ে নেওয়ার নির্দেশনা দিতে পারেন সরকার প্রধান।

জাতীয় নির্বাচনে জয়ী/পরাজিত প্রার্থীদের অবস্থান মূল্যায়ন, আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে একক প্রার্থী দেওয়া, নিজস্ব বলয় সৃষ্টি করতে গিয়ে বিএনপি-জামায়াতকে দলে না ভেড়ানো গুরুত্ব তুলে ধরা হতে পারে।

দলীয় নেতাদের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, নিরঙ্কুশ জয় নিয়ে ক্ষমতায় এলেও আত্মতুষ্টিতে ভুগতে চায় না তারা। বরং নির্বাচনে দলের বিশাল জয়ের সঙ্গে সঙ্গে যে প্রত্যাশা তৈরি হয়েছে সেটা পূরণে সামনে দিনগুলোকে চ্যালেঞ্জ হিসেবেই দেখতে চান তারা।

বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারি) রাজধানীর কৃষিবিদ মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের আলোচনা সভায় শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘আগামী পাঁচ বছর আমাদের জন্য কঠিন পরীক্ষা। উন্নয়নের যে মহাসড়কে যাত্রা শুরু করেছি, সেটা অব্যাহত রেখে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাব।’

তিনি বলেন, ‘জনগণ আমাদের ওপর আস্থা-বিশ্বাস রেখেছে। এ বিশ্বাসের মর্যাদা দিয়ে বাংলাদেশকে জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা হিসেবে গড়ে তুলব- এ বিশ্বাস আমাদের আছে। আজ জাতির পিতা আমাদের মাঝে নেই। তার আদর্শ বুকে নিয়েই কাজ করে যাচ্ছি। আমরা চাই, এ দেশের যে উন্নতি আমরা করেছি, সেটা যেন অব্যাহত থাকে।’

আজকের মিটিং নিয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য লে. কর্নেল (অব.) মুহম্মদ ফারুক খান বার্তা২৪কে বলেন,‘সদ্য সমাপ্ত নির্বাচনে দেশের মানুষ আওয়ামী লীগকে বিশাল ম্যান্ডেট দিয়েছে। স্মরণকালের সবচেয়ে উৎসবমুখর ভোট উৎসবে আওয়ামী লীগের ওপর, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার ওপর আস্থা রেখেছেন জনগণ। এর সবকিছুর মূল্যায়ন করে আগামীর কর্মপরিকল্পনা ঠিক করার দিক নির্দেশনা থাকতে পারে মিটিংয়ে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আগামী বছর মুজিব বর্ষ। মুজিব বর্ষ পালন নিয়েও আলোচনা হতে পারে।’

উল্লেখ্য, গত ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ বিজয় পায় আওয়ামী লীগ। জোটগতভাবে ২৮৮ আসন পেয়ে বিরোধী দলগুলোর বিরোধিতা সত্ত্বেও টানা তৃতীয়বারের মতো সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগ। এরপর ৭ জানুয়ারি নতুন সরকারের মন্ত্রীসভায় ব্যাপক রদবদল করে চমক দেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

যৌথসভা রোববার: আগামীকাল রোববার (১৩ জানুয়ারি) ঢাকা ও ঢাকার পাশের জেলার নেতাদের সঙ্গে যৌথসভা করবে আওয়ামী লীগ। বেলা ১১টায় ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের ওই সভায় সভাপতিত্ব করবেন দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সভায় ঢাকা, গাজীপুর, গাজীপুর মহানগর, নারায়ণগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ মহানগর, মুন্সীগঞ্জ, মানিকগঞ্জ ও নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, এমপি, সিটি করপোরেশন মেয়র, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, উল্লিখিত জেলাসমূহের সব উপজেলা, থানা ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক এবং উপজেলা চেয়ারম্যান ও পৌরসভার মেয়ররা উপস্থিত থাকবেন।

প্রিয় পাঠক, আপনিও হতে পারেন আওয়ার বাংলা অনলাইনের একজন সক্রিয় অনলাইন প্রতিনিধি। আপনার আশেপাশে ঘটে যাওয়া ঘটনা, অপরাধ, সংবাদ নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুনঃ [email protected] এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :