চা বাগানে ভোট চাইতে আসে না কেউ

  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৯:১৬ পিএম, ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮

চায়ের দোকানে তর্ক-বিতর্কে নির্বাচনি আমেজ। ব্যাতিক্রম শুধু সিলেটের চা বাগানগুলোতে। প্রার্থীদের পক্ষে কিংবা স্বয়ং প্রার্থীকে দেখা যায় না গণসংযোগ করতে। চা শ্রমিক মানুষগুলোর মধ্যেও নির্বাচন নিয়ে নেই আলাদা কোনো উচ্ছাস। ভোটের দিন সরকারি ছুটি থাকায় সে দিন ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন তারা। তবে সেটা শুধু মার্কায়। প্রার্থীকেও চেনেন না তারা।

জানা যায়, বাগানের বেশিরভাগ শ্রমিকই নৌকায় ভোট দেন। এটা সবাই জানে, তাই অন্য প্রার্থীরা আর এখানে এসে সময় নষ্ট করতে চায় না। আর নৌকার প্রার্থী তো জানেনই যে বাগানের শ্রমিকরা তাকেই ভোট দেবে। তাই তিনিও আর এ দিকে এসে প্রচারের প্রয়োজনবোধ করেন না।

এ দিকে, নৌকাতেই কেন সিল দিতে হয় জানতে চাইলে বেশিরভাগ চা শ্রমিকরাই সঠিক জবাব দিতে পারেননি। চা শ্রমিকদের বিশ্বাস, নৌকাতে ভোট দিলে তাদের একদিন অভাব ঘুচবে। বর্তমানে তারা যে দৈনিক মজুরি ও রেশন সুবিধাদি পায় তা সম্ভব হয়েছে কেবল আওয়ামী লীগের জন্য।

হিলুয়াছড়া চা বাগানের ৮০ বছর বয়সী বৃদ্ধ শ্রমিক প্রেমিল বাউরি আওয়ার বাংলাকে বলেন, ‘আমরা তো একটা সময় ভোটই দিতে পারতাম না। এ দেশে থেকেও আমরা এ দেশের ছিলাম না। নৌকাই (বঙ্গবন্ধু) আমাদের ভোট দেওয়ার সুযোগ করে দিয়েছেন। তার জন্যই আমরা এ দেশের নাগরিক হতে পেরেছি। তাই আমরা নৌকা ছাড়া আর কোনো কিছুতে ভোট দেই না।’

প্রিয় পাঠক, আপনিও হতে পারেন আওয়ার বাংলা অনলাইনের একজন সক্রিয় অনলাইন প্রতিনিধি। আপনার আশেপাশে ঘটে যাওয়া ঘটনা, অপরাধ, সংবাদ নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুনঃ [email protected] এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :